আজ কেরানীগঞ্জ গণহত্যা দিবস

আজ ২ এপ্রিল, কেরানীগঞ্জ গণহত্যা দিবস।কেরানীগঞ্জের ইতিহাসে সবচেয়ে ভয়াবহ ও কালো এক রাত।একাত্তরের ২৫ মার্চ রাতে ঢাকা শহরে নির্বিচারে হত্যাযজ্ঞ চালানোর পর পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী ১৯৭১ সালের এ দিনে দ্বিতীয় দফা হামলা চালায় কেরানীগঞ্জে। সেদিন প্রায় ৫ হাজার নিরস্ত্র-ঘুমন্ত মানুষকে গুলি চালিয়ে ও বেয়নেট দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে।

কেরানীগঞ্জবাসীর জন্য এটি একটি ভয়াবহ স্মৃতিবিজড়িত দিন।  এ রাতের কথা স্মরণ করে আজো শিউরে উঠেন কেরানীগঞ্জের মানুষ। কোন কিছু বুঝে ওঠার আগেই কেরানীগঞ্জ এক রক্তাক্ত জনপদে পরিণত হয়। সে রাতে কেরানীগঞ্জের জিনজিরা, নজরগঞ্জ, শুভাঢ্যা, ভাংনা, আগানগর, নেকরোজবাগ, পটকাজোর, কালিন্দীসহ বিভিন্ন এলাকায় নির্বিচারে চলে পাকিস্তানি সেনাদের হত্যাযজ্ঞ। সেই হত্যাযজ্ঞে প্রায় পাঁচ হাজার নারী-পুরুষ-শিশু শহীদ হন।

উল্লেখ্য, পাক হানাদার বাহিনী ১৯৭১ সালের ২ এপ্রিল রাতের আঁধারে ঝাঁপিয়ে পড়ে কেরানীগঞ্জের নিরীহ মানুষের ওপর। নির্বিচারে বর্বরোচিতভাবে গুলি করে হত্যা করা হয় পাঁচ সহস্রাধিক মানুষকে। আগুনে ভস্মীভূত করা হয় শত শত বাড়িঘর। ফলে দেশ স্বাধীনের পর থেকে প্রতিবছর ২ এপ্রিলকে গণহত্যা দিবস হিসেবে পালন করে আসছে কেরানীগঞ্জবাসী।

Leave a Reply