কলেজছাত্রীর বাবার কান ছিঁড়ে নেওয়ায় দেবহাটার ছাত্রলীগ নেতা গ্রেফতার

সাতক্ষীরা জেলার দেবহাটা থানাধীন ঘলঘলিয়া এলাকায় এক কলেজছাত্রী মেয়েকে উত্ত্যক্ত করতে বাধা দেওয়ায় বাবার কান ছিঁড়ে নেয়া বখাটে আবু জাফরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। জানা যায়, জাফর দেবহাটা থানা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি।

শুক্রবার (২১ জুন) রাতে দেবহাটার সখিপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

কান হারানো মেয়ের বাবা আজিজুল ইসলাম খোকন (৪৫) উপজেলার ঘলঘলিয়া গ্রামের রহমতুল্যা সরদারের ছেলে। বখাটে ছাত্রলীগ নেতা আবু জাফর (২৫) একই গ্রামের রিয়াজুল সরদারের ছেলে।

কান হারানো বাবা আজিজুল ইসলাম জানান, আমার মেয়ে দেবহাটার সরকারি খানবাহাদুর আহছানউল্লাহ কলেজে এইচএসসি দ্বিতীয় বর্ষে পড়ছে। প্রায় আমার মেয়েকে উত্ত্যক্ত করে আসছিল বখাটে আবু জাফর। মেয়েকে উত্ত্যক্ত না করতে বারণ করায় সে আমার ক্ষিপ্ত হয় । পরে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে ঘলঘলিয়া বাজারে যাওয়ার পথে বখাটে আবু জাফর অতর্কিত হামলা চালিয়ে বাম কানটি দাঁত দিয়ে কামড়ে ছিঁড়ে নেয়। পরে এলাকার স্থানীয়রা আমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে।

এদিকে, বখাটে আবু জাফর এমন কাণ্ড ঘটানোর পরই তাকে ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়। দেবহাটা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সুমন ও সাধারণ সম্পাদক এএইচ সোহাগ বখাটে এই ছাত্রলীগ নেতাকে বহিষ্কার করে দুই সদস্যের তদন্ত টিম গঠন করেন।

দেবহাটা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সুমন জানান, এঘটনায় আমারা দুঃখ প্রকাশ করছি। ছাত্রলীগে বখাটেদের স্থান নেই। অভিযোগের পরপরই দেবহাটা সদর থানা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আবু জাফরকে বহিষ্কার করা হয়েছে। দুই সদস্যের তদন্ত টিম গঠন করেছি ।

ঘটনার বিষয়ে দেবহাটা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বিপ্লব কুমার সাহা বলেন, ঘটনার বিষয়ে থানায় মামলা হয়েছে। অভিযান চালিয়ে শুক্রবার রাতে সখিপুর এলাকা থেকে বখাটে আবু জাফরকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

Leave a Reply