শেরপুরের ছেলে মুজাহিদুল ইসলাম সোহাগ কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত

জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানে আদর্শে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে কাজ করে যেতে চান বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির নব-নির্বাচিত সাংগঠনিক সম্পাদক মুজাহিদুল ইসলাম সোহাগ ।

শেরপুরের কৃতি সন্তান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তুখোড় ছাত্রনেতা মুজাহিদুল ইসলাম সোহাগ বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক পদে নির্বাচিত হওয়ায় তাকে শুভেচ্ছা অভিনন্দন জানিয়েছেন তার রাজনৈতিক সহকর্মীরা।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের দায়িত্বশীল পদে মনোনিত করায় মুজাহিদুল ইসলাম সোহাগ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন সংগঠনটির কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী  শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী সহ সিনিয়র নেতৃবৃন্দের প্রতি।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় পূর্ণাঙ্গ কমিটি  দীর্ঘ প্রায় এক বছর অপেক্ষার পর ১৩ মে ঘোষিত হয়েছে। এবারের কমিটিতে শেরপুরের ছেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্রনেতা মুজাহিদুল ইসলাম সোহাগ সাংগঠনিক সম্পাদকের  পদ পেয়েছেন। এতে খুশি এলাকাবাসি।

শেরপুর জেলা শহরের পৌরসভার বাগরাকসা গ্রামের নুরুল ইসলাম মনিরের ছেলে মুজাহিদুল ইসলাম সোহাগ। তাঁর বাবা একজন ব্যাংকার ও কবি । মুজাহিদুল ইসলাম সোহাগ  ২০০৬ সালে শেরপুর সরকারি ভিক্টোরিয়া একাডেমি থেকে এস এস সি ও এইচ এস সি ২০০৮ শেরপুর সরকারি কলেজ থেকে পাস করেন। পরে তিনি ২০১৫ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মার্কেটিং বিভাগে অধ্যয়ন করেন।

ছাত্রলীগের সাবেক পরিবেশ বিষয়ক উপ সম্পাদক মুজাহিদুল ইসলাম সোহাগ দীর্ঘদিন ধরে সুনামের সাথে রাজনীতি করে আসছেন । মেধা ও যোগ্যতা দিয়ে ছাত্রলীগের সকল কাজে নিজেকে সম্পৃক্ত রেখে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দেশগড়তে আজীবন শেখ হাসিনার কর্মী হিসেবে থাকতে চান মুজাহিদুল ইসলাম সোহাগ ।

মুজাহিদুল ইসলাম সোহাগ জানান,জননেত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে দিন রাত নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছি।

Leave a Reply